কোন কথাগুলো অন্যের সাথে শেয়ার করা উচিৎ না?

আমাদের সবার জীবনে কিছু না কিছু সিক্রেট থাকে যেগুলো শুধু নিজের মধ্যে রাখাটাই বেশি বুদ্ধিমানের কাজ আজ আপনার কারো সাথে খুব ভালো সম্পর্ক আছে আপনি দুর্বলতা বসে সে সব কথা তাকে বলে ফেললেন বলা তো যায় না দুদিন পর যদি তার সাথে আপনার সম্পর্ক খারাপ হয়ে যায় তখন তো আপনাকেই আফসোস করতে হবে পরে সে হয়তো সেটা নিয়ে আপনাকে ব্ল্যাকমেইল করতে পারে। সে জন্যই আমাদের গোপন কথা গুলোকে সব সময় গোপন রাখা উচিত শুধু শুধু শেয়ার করে হালকা হতে গিয়ে কেন নিজের বিপদ ডেকে আনবেন তবে হ্যাঁ তার কাছে আপনার কোনো কথায় গোপন রাখা উচিত নয় যে সুখে দুঃখে সারা জীবন আপনার পাশে থাকার জন্য প্রস্তুত। আজকে এই টিউটোরিয়ালের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কোন বা কি ধরনের কথাগুলো কখনো কারো সাথে শেয়ার করা উচিৎ না।



জীবনের লক্ষ্য 

আমাদের সমাজে ভেংচি দেওয়ার লোকের অভাব নেই তাই আমরা যখন সাদা মনে আমাদের জীবনের টার্গেট আজেবাজে লোক কে বলে ফেলি তখন তারা ভাল দিক গুলো বাদ দিয়ে শুধু নেগেটিভ সাইড নিয়ে কথা বলে আপনার উৎসাহ কমিয়ে দেয় বা আপনাকে ডিমোটিভেট করে দেয় এই যেমন আপনি বড় কোনো একটা কোম্পানি তে চাকরি নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন,,, আর সেটা আপনি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করলেন, তখন সে আপনাকে বলতে পারে ভাই তুই তো ইংলিশে তেমন একটা ভালো না তাহলে তুই এই কোম্পানি তে কিভাবে চাকরি নিবি? তাছাড়া তুই তো ভালো করে তো কথাও পারিস না ইন্টারভিউ কেমন করে দিবি,,, ইত্যাদি।এভাবেই আপনি আপনার উৎসাহ হারিয়ে ফেলবেন আর এই জন্যই আমাদের লাইফ কোর্স কাউকে বলা উচিত নয় হাতে গোনা কিছু মানুষ থাকে যারা শুভাকাঙ্ক্ষী তাদের সাথে বলতে পারেন।



ব্যাক্তিগত কথা

বাংলাতে একটা প্রবাদ আছে! ঘরের কথা যেনো পরে না জানে। আমাদের এই সমাজ বড় হিংসুটে এখানে কেউ কারো ভালো চায়না তাই আপনার বাড়িতে কি হয়েছিলো স্ত্রীর সাথে কেন ঝগড়া হয়েছিল আপনি কি নিয়ে টেনশন করেন?  আপনার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল কী?আপনি কি কি অন্যায় করেছেন ইত্যাদি,,  এগুলো কাউকে বলবেন না আপনার মনে হতে পারে এগুলো বললে সবাই আপনার মনে সাহস যোগাবে কিন্তু ভাই সেটা শুধু আপনার সামনেই দেখাবে আর আপনার পিছনে আপনার সমস্যা গুলো নিয়ে  তাচ্ছিল্য করবে। শেয়ার করার মতো অনেক কিছুই আছে কিন্তু এই বিষয়গুলো আপনার কাছের মানুষ ছাড়া কারো সাথে শেয়ার করবেন না।



নিজের প্রসংশা

নিজের প্রসংশা করা নিজেকে নিয়ে বড়াই করা নিজেকে বড় করে দেখানো, এগুলো অনেকের কাছে খুব পছন্দের বিষয়, কিন্তু আসলে এটা খুব বাজে জিনিস, আমি ওর জন্য ওটা করেছি, এররজন্য এটা করেছি,,,হ্যাঁ করেছেন দরকার হলে আরো করবেন কিন্তু এটা সবাইকে এভাবে বলে বেড়ানোর কি আছে আপনি তাকে সাহায্য করেছেন কি এভাবে সবাইকে বলে বেড়ানোর জন্য,,,এটা করা ঠিক নয় এতে বরে আপনার আত্বঅহংকার বেড়ে যাবে আর অহংকারই কিন্তু পতনের মূল। হ্যাঁ করুন সবাই করে সাহায্য করুন অন্যের প্রোয়জনে পাশে দাড়ান যদি সত্যি আপনি কারো কোনো প্রোয়জনে আসতে পারেন তাহলে সে এমনিতেই আপনার প্রসংশা করবে। তখন আপনাকে কষ্ট করে নিজেই নিজের প্রসংশা করতে হবে না।


ইন্টারনেট ও তথ্য প্রযুক্তির সকল বিষয়াবলী সম্পর্কিত জানতে ভিজিট করতে পারেন Projukti buzz

Post a Comment

0 Comments