অটিস্টিক শিশুর প্রতি করণীয়

 যে শিশু অটিজমে আক্রান্ত তাকে অটিস্টিক শিশু বলে। অটিজম মস্তিষ্কজাত একটি  স্নায়বিক সমস্যা, যা মস্তিষ্কের সাধারণ কর্মক্ষমতাকে ব্যাহত করে।



১৯৪৩ সালে Dr. Leo Kannen ১১ টি শিশুর একটি দল নিয়ে গবেষণা করেন এবং এদেরকে আলাদা একটি সমস্যারুপে অভিহিত করে নাম দেন অটিজম। অটিজম হচ্ছে বিকাশমূলক বৈকল্য। এই বৈকল্য যে শিশুর মধ্যে দেখা যায়, তাকেই বলা হয় অটিস্টিক ‍শিশু।

Autism is a disorder of neural development characterized by impaired social interaction and verbal and non- verbal communication and by restricted repetitive or sterotyped behavior.

বর্তমান সমাজে সার্বজনীন শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রত্যেক শিশুর মেধা ও ব্যক্তিসত্তার পূর্ণ বিকাশ সাধন করা, যাতে শিশুরা তাদের সৃজনশীলতার স্বাক্ষর রাখতে পারে। কিন্তু প্রতিবন্ধি শিশুরা সর্বজনীন শিক্ষার সুযোগ পূর্ণভাবে লাভ করতে পারে না। তাদের মেধার পূর্ণ বিকাশ ঘটাতে হলে প্রতিবন্ধিতার রকমভেদে পাঠ্যক্রম পরিবর্তন,পরিবর্ধন ও সংযোজন আবশ্যক।

অটিজমের হার মেয়েদের তুলনায় ছেলেদের মধ্যে বেশী, এর অনুপাত ১ঃ৪। শিশুর বয়স যখন ২/৩ বছর, তখন অটিজমের লক্ষণ প্রকাশ পায়।

Post a Comment

0 Comments